• মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০৮:২৯ পূর্বাহ্ন

কোমল মসৃণ ত্বকের রহস্য কী?

Reporter Name / ৪৫৬ Time View
Update : মঙ্গলবার, ৬ জুলাই, ২০২১

সুন্দরী, রূপবতী, মায়াবতী, তুলনাহীনা- মেয়েরা এসব বিশেষণ শুনতে পছন্দ করেন। সেজন্য প্রয়োজন সুস্থ শরীর, সুঠাম ফিগার আর সুস্থ ত্বক। প্রতিদিনের জীবনযাপনে কিছু নিয়ম মেনে চললে নিজেকে সাজাতে ফাউন্ডেশন-কমপ্যাক্টের প্রয়োজনই হয় না। হালকা কাজল এবং মিউট লিপ গ্লসই যথেষ্ট। চলুন জেনে নেওয়া যাক, কোমল মসৃণ ত্বকের অধিকারি হওয়ার গোপন রহস্যগুলো।
কোমল মসৃণ ত্বকের রহস্য জানুন
সময় মতো ঘুম
প্রতিদিন অবশ্যই ৮ ঘণ্টা ঘুমানোর চেষ্টা করুন। শরীর ঠিকঠাক বিশ্রাম পেলে তবেই হজম ভালো হবে, অন্ত্র পরিষ্কার থাকবে এবং ত্বক উজ্জ্বল লাগবে। ঘুম কম হলেই আই পকেট তৈরি হবে, মুখে নানা রকম র‌্যাশ দেখা দিবে। তখন সেগুলো ঢাকতে মেকআপ করতে হবে।
নিয়মতি গোসল
গ্রীষ্ম ও বর্ষার স্যাঁতস্যাঁতে ভ্যাপসা আবহাওয়াতে দিনে দুইবার ভালো করে সাবান মেখে গোছল করতে হবে। সপ্তাহে একদিন মুখ ও সারা দেহে স্ক্রাবিং করলে তবেই পরিচ্ছন্ন থাকবে ত্বক।
কোমল মসৃণ ত্বকের রহস্য জানুন
গরম পানিতে লেবু ও মধু
গ্রীষ্ম, বর্ষা বা শীত নয়, সব ঋতুতে প্রতিদিন সকালে উঠে এক কাপ হালকা গরম পানিতে একটি লেবুর রস ও মধু মিশিয়ে খেলে শরীরের টক্সিন দূর হবে এবং ত্বক উজ্জ্বল হবে।
পুষ্টিকর সুষম ডায়েট
পুষ্টিকর সুষম ডায়েট সুন্দর ত্বকের চাবিকাঠি। তেলে ভাজা খাবার, ফাস্ট ফুড, জাঙ্ক ফুড, অতিরিক্ত মশলা দিয়ে রান্না খাবার খাওয়ার বিষয়ে সচেতন থাকুন। এসব খাবার থেকে যতো দূরে থাকবেন ততই ভালো থাকবে ত্বক।
কোমল মসৃণ ত্বকের রহস্য জানুন
যখন তখন মুখে হাত স্পর্শ করবেন না
কারণে-অকারণে মুখে হাত দেওয়ার বদ অভ্যাসটি ছাড়তে হবে। সারাদিনে বিভিন্ন জায়গায় হাত স্পর্শ করতে হয়। তাই হাতের মধ্যেই সবচেয়ে বেশি জীবাণু থাকে আর যতোবার মুখে হাত দেওয়া হয় ততবারই সেগুলোকে ছড়িয়ে দেওয়া হয় মুখের ত্বকে।পলিউশন ফেশিয়াল
দুই মাস অন্তর একবার ডি-ট্যান পলিউশন ফেশিয়াল করতে হবে। এতে ত্বকের অনেক গভীরে বাসা করে থাকা ধূলিকণাগুলোও পরিষ্কার হয়ে যায় এবং ত্বক স্বাভাবিকভাবেই উজ্জ্বল লাগে।
ফেসওয়াশ ব্যবহার
মুখ ধোওয়ার সময়ে সাবান বা বডিওয়াশ ব্যবহার করা যাবে না। শুধুই ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুতে হবে। কোনো ওয়াইপ দিয়ে ঘষে ঘষে মুখ পরিষ্কার করবেন না। আর মুখ ধোওয়ার পরে শুকনো তোয়ালে বা গামছা দিয়ে হালকা করে মুছে নিতে হবে।ক্লিনজিং-টোনিং-ময়শ্চারাইজিং
প্রতি রাতে বিছানা যাওয়ার আগে ক্লিনজিং-টোনিং-ময়শ্চারাইজিং করতে অবহেলা করবেন না। প্রতি রাতে এই তিনটি ধাপ মেনে চললে ত্বকে কোনো ময়লা জমতে পারবে না। আর কোনো পার্টিতে মেকআপ করে গেলে, বাড়ি ফিরে ঘুমানোর আগে ভালো করে মেকআপ তুলে ঘুমাবেন। মেকআপ নিয়ে ঘুমালে ত্বকের সর্বনাশ হবে।
নাইটক্রিম
রাতে ঘুমানোর আগে অবশ্যই নাইটক্রিম লাগাতে হবে। সারারাত ক্রিমটি মুখে মাখা অবস্থায় ঘুমালে সকালে উঠে দেখবেন ত্বক আর্দ্র এবং নরম আছে। এই নিয়মটি যারা মেনে চলেন তাদের মুখে বলিরেখা আসতে দেরি হয়।মাঝে মাঝে স্পা
মাঝেমধ্যে হেয়ার ম্যাসাজ করে স্পা করাতে হবে। মুখের ত্বকে অনেক সময় ছোট ছোট ব্রণের মতো র‌্যাশ দেখা যায় যা খুশকির জন্য হয়। চুলের গোড়া পরিষ্কার থাকলে তা হবে না। তাছাড়া চুল ভালো থাকলে সৌন্দর্য আরো বেড়ে যায় মেয়েদের।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category