• সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৬:৫৬ পূর্বাহ্ন

দুমকিতে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ! চাচা-ভাতিজা আটক।

দুমকি(পটুয়াখালী) প্রতিনিধি / ৩৮৩ Time View
Update : সোমবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০২১

পটুয়াখালীর দুমকিতে এক মাদ্রাসা শিক্ষার্থীকে চাচা-ভাতিজা মিলে ধর্ষণের পর নগ্ন ছবি ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। মাদ্রাসা শিক্ষার্থী ধর্ষণের অভিযোগে কামরুল আকন (২০) ও হাবিব আকন (২৬) নামের দুই চাচা-ভাতিজাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। উপজেলার দক্ষিন মুরাদিয়া গ্রামের আকনবাড়ি এলাকায় এমন ঘটনাটি ঘটেছে ।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানায়, গত ৫ মাস আগে উপজেলার মুরাদিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার দশম শ্রেণীর ওই শিক্ষার্থীকে একই বাড়ির আ. হক আকনের বখাটে ছেলে কামরুল (২৬) বেশ কিছুদিন যাবৎ উত্যক্ত ও কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এতে রাজি না হওয়ায় বখাটে কামরুল আকন, হাবিব আকন ওই শিক্ষার্থীর নির্জন বসত:ঘরে ঢুকে জোড়পূর্বক ধর্ষণ করে। এসময় ধর্ষকরা ধর্ষণের নগ্ন ছবি মোবাইলে ধারণ করে। দীর্ঘদিন পরে গত শনিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নগ্ন ছবিটি ছেড়ে দেয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি ভাইরাল হলে থানা পুলিশ ধর্ষক কামরুল ও হাবিব আকনকে রবিবার রাতে গ্রেফতার করে। ধর্ষণের শিকার ঐ তরুণী আটককৃত কামরুলের সম্পর্কে চাচাতো ভাইয়ের মেয়ে ও অপর আটককৃত হাবিবের চাচাতো বোন হয়।
এ ঘটনায় মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন আছে। ধর্ষণের শিকার ওই মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
দুমকি থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আ. সালাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিৎ করে বলেন, ধর্ষণের শিকার ওই শিক্ষার্থীকে ডাক্তারি পরীক্ষা এবং গ্রেফতারকৃত ২ আসামীকে মামলা দায়েরের পরে কোর্টে প্রেরণ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category