• মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১:৩৯ পূর্বাহ্ন

ভোলায় জোরপূর্বক জমি দখলের জন্য বড় ভাইয়ের স্ত্রীকে মারধরের অভিযোগ।

Reporter Name / ৪১১ Time View
Update : শনিবার, ৯ এপ্রিল, ২০২২

 

বিশেষ প্রতিনিধি।।ভোলা সদর উপজেলার ধনিয়া ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মোঃরফিক মিস্ত্রি ও তার স্ত্রী নাজমা বেগমের বিরুদ্ধে আপন বড়ভাই মোঃকালুর স্ত্রী হাজেরা বেগম(৬৫)ও নাতনি শারমিন বেগম(২১)এর উপর হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
শুক্রবার ৮এপ্রিল,দুপুর(১২টার)দিকে ধনিয়া ইউনিয়নের ৮নংওয়ার্ডের ছোট আলগী এলাকার মোল্লা বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে।
জানা যায়,রফিক মিস্ত্রি তার বড় ভাইয়ের সামান্য জমি টুকু দখল নেওয়ার জন্য যখন তখন তাদের কে মারধোর করেন।
ভুক্তভোগী হাজেরা বেগম জানান,
কোন ছেলে সন্তান না থাকাতে আমাদের স্বামী,স্ত্রী দুজনকে দেখার মত কেউ নেই।মেয়ের ঘরের নাতনি শারমিন বেগম আমাদের বাড়িতে থেকে আমাদেরকে দেখাশোনা করে।
আমার দেবর মোঃ রফিক মিস্ত্রি ও তার স্ত্রী নাজমা বেগম আমার স্বামীর নামে থাকা সামান্য জমিটুকু তাদের নামে দেওয়ার জন্য বিভিন্ন সময় চাপ সৃষ্টি করে। আমাদেরকে উৎখাত করার জন্য,একপর্যায়ে তারা জোরপূর্বক স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে জমিটা নেওয়ার জন্য চেষ্টা করছিল।শারমিন বেগম থাকাতে তারা স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিতে না পারায়,তার উপর ক্ষিপ্ত হয় আজ তাকে অকথ্য ভাষায় গালাগালিসহ মারধোর করে রফিক মিস্ত্রি।
এর আগে গতকাল সামান্য কথা কাটাকাটির নিয়ে রফিক মিস্ত্রি ও তার স্ত্রী নাজমা বেগম আমাকে মারধোর করেন।
এবং আমাকে লাঠি দিয়ে আঘাত করতে গেলে সেই আঘাত,বেগম নামের প্রতিবেশী এক বৃদ্ধার মাথায় পড়লে সে গুরুতর আহত হয়। তার চিকিৎসার খরচ এখন আমরা ধার-কর্জ করে চালাতে হচ্ছে।
মোঃকালু জানান,
আমার ছোট ভাই রফিক ও তার স্ত্রী নাজমা বেগম আমার এই সামান্য জমিটুকু নেওয়ার জন্য আমাদেরকে যখন তখন মারধোর করে।
স্থানীয়রা জানান,
রফিক ও তার স্ত্রী নাজমা বেগম খুবই উশৃংখল প্রকৃতির লোক, তারা কারো কথা শুনেনা।
কালুর সামান্য জমিটুকু নেওয়ার জন্য,কালু ও তার স্ত্রীকে এরা যখন তখন মারধোর করে।
আমরা প্রশাসনের কাছে সঠিক বিচারের দাবী জানাই।
এবিষয়ে কালুর সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে কালু ও কালুর পরিবারে কাউকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category