• সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৭:০৮ পূর্বাহ্ন

বাউফলে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে জাহাজ আটক

Reporter Name / ৮২ Time View
Update : মঙ্গলবার, ৩০ মে, ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক।
পটুয়াখালীর বাউফলে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের অভিযোগে দুটি বালুবাহী জাহাজ আটক করেছে স্থানীয় জনতা।
আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার চন্দ্রদ্বীপ থেকে জাহাজ দুটি আটক করা হয়। পরে অটক জাহাজগুলো উপজেলা প্রশাসনের কাছে হস্থান্তর করা হয়।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়নের চরওয়াডেল গ্রামের বিচ্ছিন্ন এলাকা জুড়ে সম্প্রতি একটি চর জেগে ওঠে। ওই চরের পূর্ব সীমানায় নদী। নদীর এক পাড়ে বাউফল আর অপর পাড়ে ভোলা জেলা অবস্থিত। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে ভোলা জেলার অসাধু বালু ব্যবসায়ীরা নদী পাড় হয়ে এপাড়ে এসে জেগে ওঠা চরের বালু উত্তোলন করে নিয়ে যাচ্ছেন। কয়েক বার স্থানীয়রা তাদের সাথে সমজোতা হয়। কিন্তু তার পরেও থেমে থাকছেন না ভোলার বালু ব্যবসায়ীরা। সময় পেলেই এখান থেকে বালু উত্তোলন করে নিয়ে যান। ঘটনার দিন (মঙ্গলবার) দুপুরের দিকে বালু উত্তোলন করে নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়রা ধাওয়া করে দুটি জাহাজ(বালু ভর্তি) আটক করে কালাইয়া নৌ-ফাঁড়িতে নিয়ে আসেন।
পরে উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করলে জাহাজ দুটি আটক করা হয়। এসময় বালু ব্যবসার সাথে জড়িত কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।
জাহাজের মাঝি মোতাহার হোসেন(৬৫) বলেন, ‘আমি চালক, জাহাজের মালিক আমির হোসেন মাঝি নামের ভোলার এক ব্যক্তি। ড্রেজার দিয়ে আমাদের জাহাজে বালু লোড দেয়া হয়। ওই ড্রেজার মালিক মূল দায়ি। ড্রেজার মালিককে তিনি চিনেন না বলেও জানিয়েছেন তিনি।’
স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ড্রেজারটি আটক করতে পাড়েননি তারা। ড্রেজারসহ কৌশলে পালিয়ে যান মালিকপক্ষ।
এব্যপারে বাউফল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আল আমিন বলেন, ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার দুটি জাহাজ অবৈধভাবে বাউফল সীমানায় বালু উত্তোলন করার দায়ে আটক করা হয়েছে। এদেরকে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জেল ও জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দন্ড দেয়া হতে পারে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category